মুখ খুললেন শাস্ত্রী

ম্যানচেষ্টার টেস্ট বাতিল হবার কারন হিসেবে ভারতীয় ক্রিকেট দলের দিকে ইংল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটারদের আঙ্গুল। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ও অর্থের কারনেই সিরিজের পঞ্চম টেস্ট খেলতে চায়নি ভারতের ক্রিকেটাররা, এমন মন্তব্যও করেছেন ইংল্যান্ডের অনেক সাবেক ক্রিকেটার। কিন্তু এসব কথার পরিপ্রেক্ষিতে অবশেষে মুখ খুললেন ইংল্যান্ডের মাটিতে করোনায় আক্রান্ত হওয়া ভারতের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী। 
তিনি বলেন, ‘করোনার মধ্যেও ইংল্যান্ড দেশটাই তো খোলা। সকলেই এখানে বাড়ির বাইরে যাচ্ছে, যেখানে সেখানে ঘুড়ে বেড়াচ্ছে। তাই যে কেউ করোনায় আক্রান্ত হতে পারে। চতুর্থ টেস্টে আমি করোনায় আক্রান্ত হই। যা কিনা প্রথম টেস্ট থেকেই যে কোনও কিছু হতে পারত। তাই এজন্য ভারতকে দোষারোপ করা যাবে না।’
ভারত শিবিরে করোনার প্রকোপ বেড়ে যাবার কারনে ম্যানচেষ্টার টেস্ট বাতিল হয়। ওভালে চতুর্থ টেস্ট চলাকালীন করোনায় আক্রান্ত হন ভারতের প্রধান কোচ শাস্ত্রী। তাই শাস্ত্রীসহ বোলিং কোচ ভারত অরুন, ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধর ও ফিজিও নিতিন প্যাটেলকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়।
আর ম্যানচেষ্টার টেস্ট শুরুর দেড় ঘন্টা আগে করোনায় আক্রান্ত হন ভারতের সহকারী ফিজিও ইয়োগেশ পারমার। তবে ভারতের সকল খেলোয়াড়ের আরটি-পিসিআর পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসে। কিন্তু দলের মধ্যে করোনার প্রকোপ বেড়ে যাবার আশঙ্কায় ম্যানচেষ্টার টেস্ট বাতিল করা হয়। 
করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় এখনো ইংল্যান্ডে কোয়ারেন্টাইনে আছেন শাস্ত্রী। তিনি আরও বলেন, ‘বহু বছর পর ভারতের পক্ষ থেকে এমন একটা গ্রীষ্ম দেখলো ইংল্যান্ড ক্রিকেট। এটা করোনার সময়। এ অবস্থাতেও অসাধারণ খেলেছে ভারত। এই মহামারির সময় অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডে এত ভাল কোন দলই খেলতে পারেনি। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের জিজ্ঞেস করুন। এই সফরে ছেলেরা যেভাবে পারফরমেন্স করেছে, ভারতের কোচ হিসেবে এর থেকে বেশি তৃপ্তি আমি কখনও পাইনি।’
পাঁচ ম্যাচের সিরিজে প্রথম চার টেস্ট শেষে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে ছিল ভারত। 

খেলা এর আরো খবর