আর্জেন্টিনাকে রুখে দিল চিলি

দীর্ঘ দিন পর জাতীয় দলের খেলা, তা-ও আবার বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব। সেটিও মাত্রা পেল ভিন্ন এক উপলক্ষ্যে- প্রয়াত কিংবদন্তি ম্যারাডোনাকে স্মরণ। দিনটি স্মরণীয় করে রাখার জোগানও দিয়েছিলেন দলের সেরা তারকা লিওনেল মেসি। তবে তাতেও জয় পেল না আর্জেন্টিনা। চিলির সঙ্গে লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র করেছে লিওনেল স্কালোনির দল।
 
সান্তিয়াগাতো দেল এস্ত্রোর ইউনিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোরে শুরু হওয়া ম্যাচটির ২৪ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে নেন মেসি। পাঁচবারের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের দেশের হয়ে এটি ৭২তম গোল।
 
তবে বারো মিনিটও স্থায়ী হয়নি এই অগ্রগামীতা। চিলির পয়েন্ট বাঁচানোর নায়কও দলের সেরা, ম্যাচের ৩৬তম মিনিটে গোলটি করেন আলেক্সিস সানচেস। বাকি সময় চেষ্টা করেও আর ব্যবধান বাড়াতে পারেনি কোনও দলই।
 
চিলির বিপক্ষে আর্জেন্টিনার রেকর্ড বেশ ভালো। দেশটির বিপক্ষে আগের ৮৭ ম্যাচের মধ্যে ৫৭টিতে জিতেছে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। হেরেছে ছয়টিতে, ড্র বাকি ২৪ ম্যাচ। সেই টালিটাকে আরেকটু সমৃদ্ধ করার ব্রত নিয়েই মাঠে নেমেছিলেন মেসিরা। সঙ্গে ছিল প্রত্যয়ও।
 
কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে গত ২৫ নভেম্বর ৬০ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন ম্যারাডোনা। আর্জেন্টিনাকে প্রায় একক প্রচেষ্টায় ১৯৮৬ বিশ্বকাপ এনে দেওয়া এই নায়কের চিরবিদায়ের পর এই প্রথম খেলতে নেমেছিল আর্জেন্টিনা জাতীয় ফুটবল দল।
 
কিংবদন্তিকে স্মরণ করতে এ ম্যাচে বিশেষ এক টি-শার্ট গায়ে জড়িয়ে মাঠে এসেছিলেন মেসি-আগুয়েরোরা। যার বুকের অংশে ছিল প্রিয় ম্যারাডোনার প্রতিচ্ছবি। যেখানে লেখা ছিল, ‘১৯৬০-২০২০। আজীবনের ম্যারাডোনা, ধন্যবাদ’।
 
এরই মধ্যে আর্জেন্টিনা অনূর্ধ্ব-২৩ দল ম্যারাডোনাকে শ্রদ্ধা জানিয়েছে জাপানের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে। গত মার্চের সেই ম্যাচে খেলোয়াড়রা মাঠে নেমেছিলেন বিশেষ এক জার্সি পরে। যার পেছনে ম্যারাডোনার মেক্সিকো বিশ্বকাপ ট্রফিতে চুমো আঁকার ছবিসহ বিস্তারিত ছিল। তবে ম্যাচটি ড্র করে হাতাশা নিয়েই মাঠ ছাড়ে তারা।
 
বাছাই পর্বে চার ম্যাচে তিন জয় ও দুই ড্রয়ে ১১ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দুইয়ে আছে আর্জেন্টিনা। সমান ম্যাচে শতভাগ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ব্রাজিল। চার ম্যাচে একটি করে জয় ও দ্বিতীয় ড্রয়ে ৫ পয়েন্ট নিয়ে ছয় নম্বরে চিলি। একই দিন গোল শূন্য ড্র করা প্যারাগুয়ে ও উরুগুয়ে ৭ পয়েন্ট করে নিয়ে আছে পরের দুটি স্থানে। ৫ ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে চিলির অবস্থান ছয়ে।
 
আগামী বুধবার কলম্বিয়ার মাঠে খেলবে আর্জেন্টিনা। একই দিন বলিভিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাঠে খেলবে চিলি। তার আগে শনিবার ভোরেই ৯ পয়েন্ট নিয়ে তিনে থাকা ইকুয়েডরকে আতিথ্য দেবে নেইমারের ব্রাজিল।