জয় দিয়ে ফ্রেঞ্চ ওপেন শুরু নাদালের

জয় দিয়ে ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা ধরে রাখার মিশন শুরু করলেন রাফায়েল নাদাল। অস্ট্রেলিয়ার অ্যালেক্সেই পপিরিনের বিপক্ষে জয় নিয়ে ফ্রেঞ্চ ওপেনের দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছেন এই টেনিস তারকা। 
 
গতকাল মঙ্গলবার রোলাঁ গাঁরোয় পপিরিনের বিপক্ষে ৬-৩, ৬-২ ও ৭-৬ (৭-৩) গেমে জয় পান স্প্যানিশ তারকা নাদাল। এই জয়ের মাধ্যমে শিরোপা ধরে রাখার মিশনে এক ধাপ এগিয়ে গেল নাদাল।
 
গত বছর এই প্রতিযোগিতার শিরোপা জিতে রজার ফেদেরারের সর্বোচ্চ (২০) গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসান নাদাল। এবার সেই রেকর্ড ভেঙে নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার লক্ষে এগিয়ে যাচ্ছেন এই স্প্যানিশ তারকা।
 
এদিকে নারী একক থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন টেনিস তারকা নাওমি ওসাকা। চারবারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী ওসাকা সংবাদ সম্মেলন বয়কটের ঘোষণা দিয়ে রীতিমতো সাড়া ফেলে দিয়েছেন। প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে জয়ের পরও সংবাদ সম্মেলনে আসেননি তিনি। এ জন্য তাঁকে ১৫ হাজার ডলার জরিমানা করা হয়। একই সঙ্গে টুর্নামেন্ট থেকে বহিষ্কার করার হুমকি দেওয়া হয়। তাই এসব ঝামেলা এড়াতে নিজেই সরে দাঁড়ালেন ওসাকা।
 
এক টুইট বার্তায় টুর্নামেন্ট থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা জানিয়েছেন ওসাকা। আপাতত কিছুদিন টেনিস থেকে দূরে থাকবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।
 
টুইটারে ওসাকা লিখেছেন, ‘আমার মনে হয়েছে টুর্নামেন্ট, অন্য খেলোয়াড় ও আমার নিজের ভালোর জন্যই সরে দাঁড়ানো উচিত। প্যারিসে এখন সবাই টেনিসেই মনোযোগ দিতে পারবেন। আমি কখনই ঝামেলা হয়ে থাকতে চাইনি। আমি মনে করি, ব্যাপারটা আরও পরিষ্কার করে বোঝাতে পারতাম। সত্যি কথা হলো, আমি ২০১৮ সালের ইউএস ওপেন থেকেই মানসিক অবসাদে ভুগছি। এর সঙ্গে লড়াই করতে সত্যিই খুব কঠিন সময় কাটিয়েছি।’
 
ওসাকা আরো লিখেছেন, ‘আপাতত কোর্ট থেকে আমি কিছুটা সময় দূরে থাকব। কিন্তু যখন সময় হবে, তখন খেলোয়াড়, গণমাধ্যম ও ভক্তদের জন্য ভালো হয়, এমন পথ বের করতে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করব।’