‘দাবি না মানলে পরিবহন ধর্মঘট চলবে’

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদ ও পরিবহন ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে আজও যাত্রীবাহী বাস এবং পণ্যবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধ রয়েছে। এরমধ্যে শনিবার (৬ নভেম্বর) দুপুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামালের সঙ্গে তার ধানমন্ডির বাসভবনে বৈঠক করেছেন ট্রাক শ্রমিক-মালিক ফেডারেশনের নেতারা।
 
বৈঠক শেষে ট্রাক শ্রমিক-মালিক ফেডারেশনের অতিরিক্ত মহাসচিব আব্দুল মোতালেব জানিয়েছেন, আমাদের দাবি মানা না হলে ধর্মঘট চলবে।
 
তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের আশ্বস্ত করে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী দেশের বাইরে আছেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে যৌক্তিক দাবির কথা জানাবেন। এরপর আমাদের সঙ্গে মন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় অথবা আগামীকাল আবারও বসবেন।
 
ট্রাক শ্রমিক-মালিক ফেডারেশনের অতিরিক্ত মহাসচিব বলেন, দুপুরে ধানমন্ডিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসায় আমরা বৈঠক শেষ করি। বৈঠকে ধর্মঘটের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের দাবির কথা শুনেছেন এবং তিনি বলেছেন যৌক্তিক দাবিগুলো মেনে নেওয়া হবে।
 
তিনি আরও বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে আমাদের ভাড়ার ওপরে প্রভাব পড়েছে। আগে ভাড়া যেখানে ছিল ১০ হাজার, সেখানে এখন ভাড়া হবে তেলসহ ১২ হাজার। তাহলে কীভাবে আমরা গাড়ি চালাবো? আমাদের লাভের যে অংশটা ছিল তা এখন তেলেই চলে যাবে।
 
গত বুধবার রাতে প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিনের মূল্য ৬৫ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৮০ টাকা করা হয়। এরপর, শুক্রবার সকাল থেকে ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান ও লরিচালক-মালিকেরা গাড়ি চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন। তাদের সঙ্গে যোগ দেন বাসচালক-মালিকেরা।
 
গত বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি ও রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, ডিজেলের দাম বৃদ্ধি সরকারের আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। আলোচনা করে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত ছিল। যেহেতু সড়কপথের ওপর অনেকটাই নির্ভরশীল দেশের অর্থনীতি।

সর্বশেষ সংবাদ

সংগঠন এর আরো খবর