ওমিক্রনের পর নয়া আতঙ্ক ডেলমিক্রন:ইউরোপে চলছে ডেলমিক্রন সুনামী
বি এম জুলফি

বিশ্বজুড়ে করোনার ২য় ঢেউ অনেককিছু তছনছ করে চলে গেলেও বিশ্বজুড়ে মানুষ যে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলবে তার বুঝি আর কোনোই জো নেই।
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ফের বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। যুক্তরাজ্যে একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ২০ হাজারের বেশি, যাদের মধ্যে ওমিক্রনে সংক্রমিত ২৩ হাজার ৭০০। অন্যদিকে প্রতিবেশি দেশ ভারতের মধ্যপ্রদেশে ও হিমাচলেও ছড়িয়ে পড়েছে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন। সংক্রমণ বাড়তে থাকায় কর্ণাটক রাজ্যে ১০ দিনের রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করা হয়েছে। এদিকে নতুন বছরকে সামনে রেখে বিশ্বজুড়ে আরও দেড় হাজার ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।
নতুন বছরকে সামনে রেখে উৎসবের প্রস্তুতির জায়গায় শঙ্কা আর উৎকণ্ঠা বাড়ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। প্রায় প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ছড়িয়ে পড়ছে নতুন নতুন দেশ ও অঞ্চলে। এরইমধ্যে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি, তামিলনাড়ু, হরিয়ানা, গুজরাটসহ বেশ কয়েকটি প্রদেশে ছড়িয়ে পড়েছে ওমিক্রন।
এপর্যন্ত দেশটিতে ৪শ'র বেশি আক্রান্ত হয়েছেন নতুন এই ভ্যারিয়েন্টে। সংক্রমণ বাড়তে থাকায় কর্ণাটক রাজ্যে ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১০ দিনের রাত্রিকালীন কার্ফিউ জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন। কার্ফিউ চলবে রাত ১০টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত।
মহামারি করোনা প্রতিরোধে সরকারের পরিকল্পনা নিয়ে স্থানীয় সময় শনিবার রাতে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ১০ই জানুয়ারি থেকে ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি, স্বাস্থ্যকর্মী ও করোনাযোদ্ধাদের বুস্টার ডোজ দেয়া হবে বলে জানান তিনি। এদিকে মোদির ভাষণের পর করোনা টিকা এবং বুস্টার ডোজ দেয়ার কার্যক্রমে গতি বৃদ্ধি করেছে দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ।
প্রতিবেশি হিসেবে বাংলাদেশকে সতর্ক হতে হবে
প্রতিবেশি দেশ হিসেবে তাই বাংলাদেশকেএখনই সতর্কতা আবলম্বন করতে হবে তাতে সন্দেহ নাই।
গত ১১ ডিসেম্বর করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে বিশ্বজুড়ে এখন উদ্বেগ ছড়ানো ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত দুই রোগীর সন্ধান মিলেছে বাংলাদেশ।
তারা দুজনই বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটার; তারা আফ্রিকার দেশ জিম্বাবুয়ে সফর করে সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন।
মানবদেহে সংক্রমণের পর অসংখ্যবার রূপবদল করলেও এক বছরের বেশি সময় পর ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টই মহামারীর মাত্রা ভয়াবহ করে তোলে। এরপর টিকা যখন মহামারী নিয়ন্ত্রণের আশা দেখাচ্ছে, তখন দক্ষিণ আফ্রিকায় ধরা পড়ে ভাইরাসটির নতুন রূপ ওমিক্রন।
এরপর আফ্রিকা মহাদেশ থেকে আসার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকার নানা বিধি-নিষেধ আরোপ করলেও এর মধ্যেই জিম্বাবুয়েতে নারীদের ওয়ানডে বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে খেলতে যাওয়া বাংলাদেশ  দল ঢাকায় পৌঁছানোর পর সব খেলোয়াড়দের পাঠানো হয় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে। সেখানে নমুনা পরীক্ষার পর দুজনের করোনাভাইরাস ‘পজিটিভ’ আসে। তারা এখন সুস্থতার পথে।
দক্ষিণ আফ্রিকা, যেখানে ওমিক্রনের প্রথম রোগী ধরা পড়েছিল, সেখানকার এক চিকিৎসক জানিয়েছিলেন যে এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তদের উপসর্গ মৃদু। আক্রান্তদের হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজনও পড়ছে না।
ওমিক্রনের রোগীদের ক্ষেত্রে দুর্বল ভাব এবং গা ও মাথা ব্যথার উপসর্গই দেখা যাচ্ছে। তাদের অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাওয়ার লক্ষণ দেখা যায়নি, যেটা ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছিল।
ওমিক্রনে বিশ্বে এখন অবধি কারও মৃত্যুর নিশ্চিত খবরও পাওয়া যায়নি।
ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, দেশে যে সমস্ত টিকা ব্যবহার করা হচ্ছে, সেই টিকাও ওমিক্রনকে প্রতিরোধ করার কাজ করে। তাই, যারা এখনও টিকা নেয় নাই, তাদের তাড়াতাড়ি টিকা নিতে হবে।
 
ইউরোপে ভয়াবহভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ
সম্প্রতি ২৪ ঘণ্টায় বৃটেনে ১ লাখ ২০ হাজারের বেশি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, একদিনে ওমিক্রনে রেকর্ড ২৩ হাজারের বেশি সংক্রমিত হয়েছেন। এপর্যন্ত দেশটিতে করোনার নতুন এই ভ্যারিয়েন্টে ১ লাখ ১৪ হাজারের বেশি আক্রান্ত হয়েছেন।
ইউরোপের আরেক দেশ ফ্রান্সেও নতুন কোরে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। একদিনে প্রায় ১ লাখের বেশি আক্রান্ত হয়েছেন। যা দেশটিতে করোনা সংক্রমণের পর সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড।
পর্তুগালে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ফের নিষেধাজ্ঞার বেড়াজালে আটকে পড়ছে সাধারণ মানুষ। স্থানীয় সময় শনিবার রাত থেকে পর্তুগালে নতুন কোরে করোনার বেশ কিছু বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন ঘরে থেকে অফিসের কাজ করতে হবে, এছাড়া বন্ধ রাখা হবে সব নৈশ ক্লাব ও বার।
এদিকে নতুন বছরের উৎসবকে সামনে রেখে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিশ্বজুড়ে বন্ধ করা হচ্ছে বিমান চলাচল। নতুন কোরে আরো দেড় হাজার ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। যার কারণে এপর্যন্ত বাতিলকৃত ফ্লাইটের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৬ হাজারে।
মহামারী করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের ঢেউ সামাল দিতে নাজেহাল হচ্ছে গোটা বিশ্ব।
তার মধ্যেই আতঙ্ক ছড়াচ্ছে করোনার আরও এক নতুন ধরন। ওমিক্রনের পর এবার ত্রাস সৃষ্টি করতে আসছে ডেলমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট। জানা গেছে, আমেরিকা এবং ইউরোপে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে ডেলমিক্রন।  ডেল্টা এবং ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের মিলিত করোনাভাইরাসের রূপটিই হল ডেলমিক্রন।
ভাইরাসের এই নতুন প্রজাতি যে আরও কয়েকগুণ বেশি সংক্রামক হতে চলেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
ডেল্টা এবং ওমিক্রন প্রজাতির ভাইরাস মিলিত হয়েই এই ডেলমিক্রনের উৎপত্তি হয়েছে। অজান্তেই ইউরোপে ইতিমধ্যেই ডেলমিক্রন সংক্রমণের মিনি সুনামি আছড়ে পড়েছে বলে বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন।
সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডিরেক্টর তেদ্রোস আধানম ঘেব্রেইসাস সতর্ক করেছিলেন, বুস্টার ডোজের উপর এখনই বাড়তি গুরুত্ব দেওয়ার প্রয়োজন নেই। আপাতত দু'টি করে ডোজ দিয়ে প্রতিটি দেশকেই ২০২২ সালের মার্চ মাসের মধ্যে ৭০ শতাংশ নাগরিককে টিকাদান করতে হবে। তার সেই বক্তব্য ডেলমিক্রনের সংক্রমণ ঠেকাতে কতটা কার্যকরী হবে এখনও জানা যায়নি।
 
ওমিক্রন কী?
দক্ষিণ আফ্রিকায় আবিষ্কার হওয়া সার্স-কোভ-২ (করোনাভাইরাসের)-এর একটি ভ্যারিয়েন্ট বা প্রজাতি 'ওমিক্রন'। করোনাভাইরাসের নতুন রূপ পাওয়া যাওয়ার পর বিশ্বজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। মাইক্রোবায়োলজির নমেনক্লেচারে যে এমন নাম দিতে হতে পারে, তা ভাবা যায়নি। কিন্তু কতটা ক্ষতিকারক করোনার এই নয়া চরিত্র?  কীভাবেই বা বুঝবেন ওমিক্রন সংক্রমণ ঘটেছে আপনার শরীরে।
 বলা হচ্ছে যে ডেল্টার থেকেও ভয়ঙ্কর ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট। আরও বেশি সংক্রামক এবং আরও দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়তে চলেছে করোনার এই নয়া প্রজাতি।
ওমিক্রনের লক্ষণগুলি কী তা আমরা জেনে নিতে পারি।
চিকিৎসকদের মতে ওমিক্রনের কিছু লক্ষণ রয়েছে যা সম্পূর্ণ ভিন্ন। যদিও আক্রান্তদের মধ্যে ওমিক্রনের লক্ষণ হালকা এবং কিছু রোগী হাসপাতালে ভর্তি না হয়েই সুস্থ হয়ে উঠেছেন।
দক্ষিণ আফ্রিকান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (সামা) প্রধান  বলেছেন যে ওমিক্রন দ্বারা সংক্রামিত রোগীর চরম ক্লান্তি, গলা ব্যথা, পেশী ব্যথা এবং শুকনো কাশির মতো সমস্যা দেখা যায়। শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট থেকে এর লক্ষণগুলো বেশ আলাদা এবং ওমিক্রন দ্বারা সংক্রামিত বেশিরভাগ রোগীর বয়স ৪০ বছরের কম।
সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ডেল্টা আক্রান্তদের মতো ওমিক্রন আক্রান্তদের কেসে এখনও পর্যন্ত স্বাদ-গন্ধ হারিয়ে ফেলার ঘটনা ঘটেনি। এমনকী করোনা আক্রান্তের কেসে এতদিন সবথেকে চিন্তার বিষয় ছিল রক্তে অক্সিজেন লেভেল হঠাৎ নেমে যাওয়া, এই নতুন প্রজাতির ক্ষেত্রে তা হয়নি।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কিঞ্চিৎ ভয়ও জাগিয়েছে এক্ষেত্রে। কেননা, তারা জানিয়েছে, এই প্রজাতির ক্ষেত্রে উপসর্গ না-ও দেখা দিতে পারে। অতএব, এতটুকু শৈথিল্যকে প্রশ্রয় না দিয়ে  কঠোরভাবে কোভিডবিধি মেনে চলার কথাই বলা হচ্ছে হু-র তরফ থেকে।
ওমিক্রনে মৃ্ত্যুঝুঁকি কম হলেও একে আবহেলা করার কোনই কারণ নেই। কারণ এটা একটি নতুন প্রজাতির করোনা। যা শরীরের জন্য দীর্ঘ মেয়াদী কী ক্ষতি করতে পারে তা আমাদের জানা নাই।
ডেলমিক্রন ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে
তাছাড়া এরই মধ্যে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে করোনার আরও এক নতুন ধরন। ওমিক্রনের পর  ত্রাস সৃষ্টি করতে আসছে ডেলমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট। আমেরিকা এবং ইউরোপে ডেলমিক্রন ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে বলে বিশেষজ্ঞরা নিশ্চিত হয়েছেন।।  ডেল্টা এবং ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের মিলিত করোনাভাইরাসের রূপটিই হল ডেলমিক্রন।
ভাইরাসের এই নতুন প্রজাতি যে আরও কয়েকগুণ বেশি সংক্রামক হতে চলেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যেহেতু করোনার যথার্থ চিকিৎসা এখনো আবিস্কৃত হয়নি, তাই আমাদের করোনা প্রতিরোধেই বেশিমনেনিবেশ করতে হবে। এজন্য বসে না থেকে সবাইকে সতর্ক হতে হবে এই নতুন মহামারী প্রতিরোধে।
 
 
 
 

অন্তরালের খবর এর আরো খবর