গণতন্ত্র ও ভোটাধিকারে বিশ্বাস করে না আওয়ামী লীগ: গয়েশ্বর

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, গতকাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হল। সেখানেও আওয়ামী লীগ নিজেরা নিজেরা মারামারি করেছে, বহু আহত হয়েছে, মারাও গেছে। দেখেন নিজেরা নিজেরা ভোট করেছে, সেখানেও ভোটারদের ভোট দিতে দেওয়া হয়নি। আসলে আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র ও ভোটাধিকারে বিশ্বাস করে না।
 
শুক্রবার ঢাকা জেলা বিএনপির উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জ্বালানি তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।
 
গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে সব ধরনের কৃষি, শিল্প, গার্মেন্টসহ সব কিছুর উৎপাদন খরচ বেড়ে গেছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় প্রতিটি পণ্যের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। সাংবাদিক বন্ধুরাসহ সাধারণ মানুষ বেকার হচ্ছে। আজ দেশে গইতন্ত্র নেই, ভোটাধিকার নেই। দেশে মানুষের কোনো অধিকার নেই।
 
এখান থেকে দেশের মানুষকে মুক্ত করতে হবে। এজন্য প্রয়োজন এই সরকারের পদত্যাগ ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন।
 
তিনি আরো বলেন, এই সরকারের একটা ভয়, দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে গ্রামে গ্রামে ব্যানার লাগিয়েও আওয়ামী লীগ খুঁজে পাওয়া যাবে না।
 
সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার ১১ বছরের সাজা দেওয়া প্রসঙ্গে গয়েশ্বর বলেন, যে কয়দিন সিনহা সরকারের খায়েশ মিটাতে পেরেছেন, ওই কয়েকদিন ভালো ছিলেন। কেন তাকে পদত্যাগ করালেন? কেন বিদেশে পাঠালেন? বিচার বিভাগে কী অবস্থা?
 
ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাকের পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, বিএনপি কেন্দ্রীয় নেতা নাজিম মাস্টার, অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরী, ঢাকা জেলার মফিজুল রহমান পলাশ, ছাত্রদলের রবিউল ইসলাম অমিত,তমিজ উদ্দিন প্রমুখ।

সর্বশেষ সংবাদ

মানবাধিকার এর আরো খবর