ঢাকার ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ৩ দিন কোভিড টিকাদান

 
ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের সব ওয়ার্ডে মঙ্গলবার থেকে তিন দিন কোভিড টিকা দেওয়া হবে।
 
বিশেষ এই কর্মসূচিতে যাদের নিবন্ধন করা আছে, তাদের পাশাপাশি নিবন্ধন করেননি এমন ব্যক্তিরাও টিকা নিতে পারবে।
 
তাদের জন্য টিকাদান কেন্দ্রেই নিবন্ধনের ব্যবস্থা থাকছে, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সুপারিশপত্র দিয়েও টিকা নেওয়া যাবে।
 
ওয়ার্ডভিত্তিক এই টিকাদান কর্মসূচিতে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেওয়া হবে। প্রথম ডোজ নেওয়ার দুই মাস পর একই কেন্দ্র থেকে নেওয়া যাবে দ্বিতীয় ডোজ।
 
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির প্রধান অধ্যাপক ডা. শামসুল হক সোমবার রাতে এখবর কথা জানিয়েছেন।
 
ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ৭৫ এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে ৫৪টি ওয়ার্ড রয়েছে। এসব ওয়ার্ডে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত টিকাদান চলবে।
 
শামসুল হক জানান, গত ১৬ থেকে ১৯ নভেম্বর ঢাকার কড়াইল বস্তি এলাকায় টিকাদান কার্যক্রম চালানো হয়েছিল। তখনই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নিম্ন আয়ের এলাকাগুলোয় টিকা দেওয়া হবে।
 
“সে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা সব ধরনের পরিকল্পনা নিয়েছি। মঙ্গলবার থেকে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের সব ওয়ার্ডের যেখানে নিম্ন আয়ের মানুষ বাস করে, সেখানে ওয়ার্ডভিত্তিক একটি করে কেন্দ্র স্থাপন করে জনগণকে টিকা দেওয়া হবে।”
 
তিনি বলেন, “যদি কারও জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকে, তাহলে তিনি কাউন্সিলরের কাছ থেকে নেওয়া সার্টিফিকেট অথবা জন্মনিবন্ধন ব্যবহার করতে পারবেন। এটার পরেও আরেকটা সুবিধা রয়েছে, সেটা হলো কার্ড দিয়ে আমরা টিকা দিয়ে দিব। পরবর্তীতে তিনি রেজিস্ট্রেশন করে তার সার্টিফিকেট তুলে নিতে পারবেন।”
 
মূলত সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধনের মাধ্যমে দেশে কোভিড টিকা নিতে হলেও এর আগেও বিশেষ কর্মসূচিতে নিবন্ধন ছাড়াই টিকাদান হয়েছে। 
 
গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে টিকাদান শুরু করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।
 
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, সোমবার পর্যন্ত সারাদেশে ৫ কোটি ৫২ লাখ ৯৯ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছে। এরইমধ্যে দুই ডোজ টিকা নিয়েছে ৩ কোটি ৫১ লাখ ২০ হাজারের বেশি মানুষ।
 
সোমবার পর্যন্ত ৬ কোটি ৮৮ লাখ ৭৪ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসের টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন বলে জানাচ্ছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য।

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য এর আরো খবর