শোকে স্তব্ধ শোবিজ অঙ্গন

করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৩ দিনের মাথায় না ফেরার দে‌শে পা‌ড়ি জমালেন বরেণ্য অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী। রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে চি‌কিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাত ১২টা ২০ মিনিটে তি‌নি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ ক‌রেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। ‘মিষ্টি মেয়ে’ খ্যাত এই অভিনেত্রীর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে শোবিজ অঙ্গনে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তাৎক্ষনিক শোক প্রকাশ করেছেন বেশ ক’জন তারকাশিল্পী। কণ্ঠশিল্পী কনক চাঁপা লিখেছেন, ‘আসলেই আর পারছিনা! কবরী আপা নেই। ঘণ্টা পাঁচেক আগে দোয়া চেয়ে স্ট্যাটাস দিলাম আর এখনই এটা শুনলাম! এভাবেই আমরা একে একে হারাবো আমাদের প্রিয়জনকে! আবারও বলি আমরা অবশ্যই জানি আমরা একান্তই তোমার আল্লাহ! এবং তোমার দিকেই প্রত্যাবর্তনকারী। তারপরও আমরা মানুষ। আপনজনকে ভালোবাসা আমাদের স্বভাবজাত স্বভাব। প্রিয়জন চলে গেলে পাঁজরটাই মনে হয় ভেঙে যায়। আর যদি মোটামুটি নিয়মিত হয় তখন তা সহ্যের বাইরে চলে যায়। আল্লাহ, এই রমজানে চলে যাওয়া মানুষটিকে এবং আরও যারা চলে যাচ্ছেন সবাইকে তুমি দয়া করো।’ অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তফা লিখেছেন, ‘আপনার হাসি, আপনার অভিনয়, আপনার মিষ্টিমুখ সকল বয়সের শ্রোতাদের মন্ত্রমুগ্ধ করেছে। রূপালি পর্দার সেরা অভিনেত্রী...। আমি কীভাবে আপনাকে বিদায় জানাবো...!দমবন্ধ লাগছে ...! শান্তিতে থাকুন কবরী ফুপু।’ অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি লিখেছেন, ‘সব চেষ্টা ব্যর্থ করে চলে গেলেন কবরী আপা! কোথায় যেন একটা আশা ছিল, সবাইকে অবাক করে, আপনি সেই চিরচেনা মিষ্টি হাসি দিয়ে ফিরে আসবেন। শ্রদ্ধা, ভালবাসা। ওপারে শান্তিতে ঘুমান।’ নির্মাতা মুশফিকুর রহমান গুলজার লিখেছেন, ‘না ফেরার দেশে চলে গেলেন প্রিয় এবং শ্রদ্ধেয় কবরী আপা (ইন্নি লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। শোক জানানোর কোন ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না, আপা। আপনি এভাবে চলে যাবেন তা কল্পনাও করিনি। আর কে বড় বোনের মত রাগ করে ধমক দিয়ে কথা বলবে? আবার কে আদর মিশ্রিত স্নেহের কন্ঠে বলবে, ও তো আমার ভাই। তাই ওর উপর আমি রাগ করতেই পারি। আপা, এ শোক সহ্য করা ভিষন কঠিন। শুধু এই টুকু বলবো, আমরা কোন দিনই আপনাকে ভুলবো না। ভুলতে পারবো না। দোয়া করি, মহান রাব্বুল আল আমিন আপনাকে যেন জান্নাতবাসী করেন। আপনি ওপারে যেন ভালো থাকেন। আমিন।’ সংগীতশিল্পী তিমির নন্দী লিখেছেন, ‘আর নিতে পারছি না... করোনার কাছে পরাস্ত হয়ে চলে গেলেন সোনালী যুগের প্রিয় মুখ, প্রিয় নায়িকা শ্রদ্ধেয় কবরী সারোয়ার। সৃষ্টিকর্তা আপনার বিদেহী আত্মাকে চির শান্তি দান করুন। বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি।’ সংগীত পরিচালক ইমন সাহা লিখেছেন, ‘কত স্মৃতি... কত আদর, ভালবাসা, শাসন পেয়েছি আপনার কাছ থেকে। ঈশ্বর আপনার আত্মার মঙ্গল করুক আন্টি।’ চঞ্চল চৌধুরী লিখেছেন, ‘কবরী আপা নেই...!’ বিদ্যা সিনহা মিম লিখেছেন, ‘ওপারে আপনি ভালো থাকুন। বিদায় কিংবদন্তি।’ চিত্রনায়িকা বুবলী লিখেছেন, ‘মৃত্যু সবচেয়ে বড় সত্য কিন্তু এতো অবিশ্বাস্য কেন? আমাদের সবার মৃত্যু হবে, জেনেও মানতে ইচ্ছে করে না কেন? পৃথিবীতে হয়তো এমন অনেক কেনর কোনো উত্তর নেই। সংগীতশিল্পী লুৎফর হাসান লিখেছেন, ‘পত্রিকায় কাজ করতাম, সেই সতেরো বছর আগে। তিনি বললেন, “তুমি কেমন লেখো, আমাকে দেখতে হবে”। আগের কিছু লেখা তাকে দেখালাম। তিনি বললেন “শব্দের জোর আছে, বলো কী জানতে চাও”। সে এক দীর্ঘ ইন্টার্ভিউ। ঈদ সংখ্যার লেখা। ছাপা হবার পর তাকে দিতে গেলাম। আমার সামনেই পড়লেন। বললেন “তোমার লেখা দারুণ”। এই আশির্বাদ আমি যত্নে রাখলাম। বাংলা চলচ্চিত্রের সেরা নায়িকা আজ চলে গেলেন। ভালো থাকবেন আপা।’ অভিনেতা সিয়াম আহমেদ লিখেছেন, ‘অবশেষে ঢাকাই চলচ্চিত্রের অন্যতম সেরা অভিনেত্রী চলচ্চিত্রের “মিষ্টি মেয়ে”খ্যাত সারাহ বেগম কবরী চলে গেলেন করোনা আক্রান্ত হয়ে। আমি তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করি।’ সংগীতশিল্পী বেলাল খান লিখেছেন, ‘আমাদের কৈশোরকালের নায়িকা ছিলেন কবরী। মুগ্ধ হয়ে দেখতাম তাকে। কী মিষ্টি হাসি তার! শেষ বয়সে এসে রাজনীতিতেও নাম লেখালেন। এমপি হলেন। করোনা আক্রান্ত হয়ে গত কয়েকদিন ধরেই আইসিইউতে ভেন্টিলেটরে ছিলেন তিনি। আজ চলে গেলেন চিরতরে।’

সর্বশেষ সংবাদ

বিনোদন এর আরো খবর