আগস্ট মাসেও কমলো রেমিট্যান্স প্রবাহ

সদ্য বিদায়ী আগস্ট মাসেও কমলো রেমিট্যান্স প্রবাহ। এ মাসে ১৮১ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা, যা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ১৫ কোটি ডলার কম। গত বছরের আগস্ট মাসে রেমিট্যান্স এসেছিল ১৯৬ কোটি ডলার। বুধবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়।
 
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সরকারের নগদ প্রণোদনা ও করোনায় বিদেশ ভ্রমণ নিয়ন্ত্রণের কারণে অপ্রাতিষ্ঠানিক খাত থেকে বৈধ চ্যানেলে রেমিট্যান্স বেশি এসেছে। ফলে করোনা মহামারির মাঝেও রেমিট্যান্স প্রবাহ ইতিবাচক রয়েছে। করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় গত ১লা আগস্ট ব্যাংক বন্ধ ছিল। তাই ২রা আগস্ট থেকে রেমিট্যান্সের হিসাব করা হয়েছে। অবশ্য চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাই থেকেই রেমিট্যান্স কমে গেছে।
 
জুলাই মাসে ১৮৭ কোটি ১৪ লাখ ৯০ হাজার (১.৮৭ বিলিয়ন) ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা, যা তার আগের মাস জুনের চেয়ে ৬ কোটি ৯৩ লাখ ডলার কম এবং আগের বছরের (২০২০ সালের জুলাই) একই সময়ের তুলনায় ২৭.৯৭ শতাংশ কম।
 
গত বছর জুলাই মাসে দেশে রেমিট্যান্স এসেছিল ২৫৯ কোটি ৮২ লাখ ডলার।
 
এদিকে হঠাৎ প্রবাসী আয় কমে যাওয়াকে নানাভাবে বিশ্লেষণ করছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে অনেক দেশে লকডাউন চলছে। এর ফলে প্রবাসীদের আয়ও কমেছে। এসব কারণে রেমিট্যান্স পাঠানো কিছুটা কমেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, গত জুলাইয় ও আগস্ট এই দুই মাসে প্রবাসীরা রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন ৩৬৮ কোটি ২০ লাখ ডলার। আগের বছরের একই সময়ে প্রবাসীরা পাঠিয়েছিলেন ৪৫৬ কোটি ২০ লাখ ডলার।

সর্বশেষ সংবাদ