তরিকুল ইসলামের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলামের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী আজ। তিনি রাজনৈতিক নেতা, উন্নয়নকর্মী, গণতন্ত্রের বলিষ্ঠ প্রবক্তা এবং কর্মীবান্ধব নেতা ছিলেন।
 
তরিকুল ইসলাম ১৯৪৬ সালের ১৬ নভেম্বর যশোর শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছাত্র ইউনিয়নের মাধ্যমে ছাত্ররাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন। ১৯৬৩-৬৪ শিক্ষাবর্ষে তিনি ছাত্র ইউনিয়নের প্রার্থী হিসেবে যশোর এমএম কলেজ ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৬৩ সালে সর্বক্ষেত্রে রাষ্ট্রভাষা প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে যুগ্ম-আহ্বায়ক ছিলেন। ১৯৭০ সালে মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টিতে যোগদান করেন তিনি। ১৯৯১ সাল থেকে তিনি পর্যায়ক্রমে সমাজকল্যাণ ও মহিলাবিষয়ক মন্ত্রণালয়, ডাক ও টেলিযোগাযোগ, খাদ্য, তথ্য, বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
 
দিবসটি উপলক্ষে এক বাণীতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আজীবন সংগ্রামী এই নেতা নিষ্ঠুর নির্যাতন সহ্য করেও কঠিন সিদ্ধান্তে অটুট থাকতেন। তার রাজনীতি দলীয় নেতাকর্মীদের সবসময় অনুপ্রেরণা জোগাবে। মুক্তিযুদ্ধ, স্বৈরাচার ও ফ্যাসিবাদবিরোধী গণতন্ত্র পুনঃরুদ্ধারের আন্দোলনে এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার অধিকার আদায়ের সংগ্রামে তরিকুল ইসলামের অবদান অবিস্মরণীয়।
 
দিনটি উপলক্ষে ৬ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। এর অংশ হিসেবে যশোরের বিভিন্ন এতিমখানা ও মাদ্রাসায় খাবার বিতরণ, সেলাই মেশিন বিতরণ, রক্তদান, স্থানীয় পত্রিকায় তরিকুল ইসলাম স্মরণে বিশেষ সংখ্যা প্রকাশের পাশাপাশি যশোর জেলা বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন মরহুমের কবর জিয়ারত, ওষুধ বিতরণ ও স্মরণসভা করবে। আগামী শুক্রবার যশোর জেলা বিএনপির উদ্যোগে স্থানীয় বিডি হলে স্মরণসভা এবং শনিবার তরিকুল ইসলাম স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

জন্ম ও মৃত্যু এর আরো খবর