প্যারিসে বিশ্বকাপ উদযাপনে সহিংসতা, নিহত ২

বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনালে ক্রোয়েশিয়াকে হারানোর পরপরই ফ্রান্সের রাস্তায় সমর্থকদের ঢল নামে। এরপর সমর্থকরা উল্লাস করতে গিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। তাতে ফ্রান্সের দু'জন সমর্থকের মৃত্যু হয়েছ বলে নিশ্চিত করেছে সংবাদ মাধ্যম মিরর।  রাশিয়া বিশ্বকাপে মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বসে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁখোকেও উদযাপন করতে দেখা যায়। এরপর বিশ্বকাপ জয়ের পর দেশের সমর্থকরাও বাধ ভাঙা উদযাপনে সামিল হয়। কিন্তু দেশের সেই উল্লাস সংঘর্ষে রূপ নেয়। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে সংঘর্ষে লিপ্ত হওয়ায় মোট ২৯২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।  ফ্রান্সের বিভিন্ন জায়গা জুড়েই উদযাপনের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। এর মধ্যে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে সবচেয়ে বড় সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। প্যারিসের রাস্তা থেকে পুলিশ মোট ১০২ জনকে আটক করে। তাদের মধ্যে ৯২ জনকে জেলে পাঠায় পুলিশ। প্যারিসের আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, মানুষের ঢল রাস্তায় নামতে থাকলে সেখানে অপ্রত্যাশিতভাবে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়।  সমর্থকদের নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ায় কতজন আহত হয়েছে তা অবশ্য বলা নিশ্চিত করা হয়নি। তবে সংবাদ মাধ্যমটির রিপোর্টে প্রকাশিত ছবি থেকে দেখা যায় রাস্তায় বিভিন্ন বয়সের মানুষ রক্তাক্ত হয়ে পড়ে আছেন। এছাড়া পুলিশের ছোড়া টিয়ার গ্যাসেও অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েন।