সাকিবের রাজনীতি ভাবনা

বাংলাদেশের টি২০ ও টেস্ট অধিনায়ক এবং বাংলাদেশ ক্রিকেটের বড় বিজ্ঞাপন সাকিব আল হাসান। বিগত সাত বছর আইপিএলের দল কলকাতার হয়ে খেলার পর এবার গেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদে। বর্তমান এবং সাবেক আইপিএল দল, সতীর্থ এবং ভবিষ্যত ক্রিকেট এবং রাজনীতিতে নামার কোন পরিকল্পনা আছে কিনা তা নিয়ে ভারতের সংবাদ মাধ্যম পিটিআই (প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া) এর সঙ্গে কথা বলেছেন সাকিব আল হাসান।  সাকিব আল হাসান নিদাহাস ট্রফির পর স্ত্রী-কন্যা নিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাসভবনে যান। এটা রাজনীতিতে আসার কোন ইঙ্গিত কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সাকিব আল হাসান বলেন, 'এটা ছিল একটা সৌজন্য সাক্ষাৎ। তিনি ক্রিকেট খুব ভালবাসেন, দলকে উৎসাহ দেন।' এখনই রাজনীতি নিয়ে ভাবছেন না জানিয়ে  সাকিব বলেন,  'এখন শুধু ক্রিকেট নিয়েই ভাবছি। তবে ভবিষ্যতে কি হবে তা নিয়ে আগে থেকে কিছু বলা যায় না।'   সাকিব আল হাসান, ইউসুফ পাঠান এবং মানিশ পান্ডে বর্তমান হায়দরাবাদের হয়ে খেলছেন। তারা তিনজন একসঙ্গে কলকাতার হয়ে দুটি শিরোপা জিতেছেন। এই স্মৃতি নিয়ে সাকিব আল হাসান বলেন, 'কলকাতার হয়ে শিরোপা জেতা ছিল দারুণ মুহূর্ত। তবে এখন তারা কমলা রঙের জার্সি পরে হায়দরাবাদে ভালো করতে চান।'  আর সেই পরিকল্পনার একটা বড় জায়গা জুড়ে থাকবেন আফগান তরুণ লেগ স্পিনার রশিদ খান এবং সাকিব আল হাসান। দু'জনের বোলিং জুটি নিয়ে প্রশ্ন করলে সাকিব বলেন, 'এটা অসাধারণ একটি সমন্বয়। রশিদ খান দলের হয়ে অনেক দিন ধরে ভালো বোলিং করছেন। তার মতো একজন বোলার দলে থাকা মানে অনেক কিছু। আমরা একসঙ্গে হায়দরাবাদের হয়ে অনেক ম্যাচ জিততে পারবো আশা করছি।'  ভারতের উইকেট মানে স্পিনারদের জন্য বিশেষ সুবিধা। কিন্তু লেগ স্পিনাররা সেখানে অন্যদের থেকে বেশি ভূমিকা রাখছেন। দারুণ বল করছেন মারাকান্দে, যুগেন্দ্র চাহাল,কুলদীয় যাদব এবং রশিদ খান। মারাকান্দে তো এরইমধ্যে দুই ম্যাচে ৭ উইকেটে নিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছেন। কব্জির মোচলে করা তাদের বল খেলতেই পারছেন না ব্যাটসম্যানরা।  সাকিব আল হাসান এ বিষয়ে বলেন, 'সাধারণত ব্যাটসম্যানরা তাদের বল খেলে অভ্যস্ত না। আর এ কারণে তাদের বোলিং সামলানো কঠিন হয়ে যায়। তারা এমন ধরণের বোলার যারা যে কোন উইকেটেই বল ঘুরাতে পারে। এটা তাদের জন্য বড় একটা সুবিধা।' তবে নিয়মিত খেললে তাদেরকে সামলানো সহজ হয়ে যায় বলেও জানালেন সাকিব। আজ শনিবার রাত সাড়ে আটটায় সাকিব আল হাসানের দল হায়দরাবাদ তার আগের দল কলকাতার মুখোমুখি হবে। এর আগের দুই ম্যাচেই জয় পেয়েছে হায়দরাবাদ।