রথীশের স্ত্রীর কথিত প্রেমিক কামরুল মাস্টার ১০ দিনের রিমান্ডে

রংপুরের বিশেষ জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর-পিপি ও আওয়ামী লীগ নেতা রথীশ চন্দ্র ভৌমিক বাবু সোনার স্ত্রী দীপা ভৌমিকের কথিত প্রেমিক কামরুল ইসলাম জাফরী মাস্টারকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। এছাড়া একই মামলায় রথীশ চন্দ্রের স্ত্রী দীপা ভৌমিকসহ দুইজনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। রথীশ চন্দ্র ভৌমিক বাবুসোনা তার স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে খুন হন। রংপুরের এএসপি মিজানুর রহমান বলেন, রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের খুন পূর্বপরিকল্পিত। তার স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকারের সহকর্মীর সঙ্গে পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। এর জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। এর আগে স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকারের তথ্যের ভিত্তিতে গত মঙ্গলবার মধ্যরাতে শহরের তাজহাট মোল্লাপাড়ায় একটি নির্মাণাধীন বাড়িতে আওয়ামী লীগ নেতা রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের লাশ পাওয়া যায়। র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান গত মঙ্গলবার রাত দেড়টায় বলেন, পরিবারের উদ্যোগে মঙ্গলবার দিনভর রংপুর শহরের বাড়ির পাশের ডোবায় তল্লাশি চালানো হয়। সেখানে একটি রক্তমাখা শার্ট পাওয়া যায়। গত শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে নগরীর বাবুপাড়া এলাকার বাড়ি থেকে বের হয়ে এক ব্যক্তির সঙ্গে মোটরসাইকেলে করে শহরের দিকে যান রংপুরের বিশেষ জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ও আওয়ামী লীগ নেতা রথীশ চন্দ্র ভৌমিক (বাবু সোনা)। এরপর থেকে তার সন্ধান ছিল না। তবে ওই দিন তার স্বজনরা জানান, সকাল ৬টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে চলে যান রথীশচন্দ্র। কোথায় গিয়েছেন সে বিষয়ে বাড়ির কাউকে কিছু বলেননি তিনি।
 

সর্বশেষ সংবাদ

বিশেষ প্রতিবেদন এর আরো খবর