মধ্যরাতে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতদের আন্দোলন স্থগিত

রোববার রাত দেড়টায় অবস্থান কর্মসূচি স্থগিত করেছেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা। আওয়ামী লীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত ৪ নেতার সঙ্গে আলোচনার পর রাজু ভাস্কর্যে এসে তারা কর্মসূচি স্থগিতের ঘোষণা দেন। এর আগে শনিবার মধ্যরাতে টিএসসিতে পদবঞ্চিত ও প্রত্যাশিত পদ না পাওয়া নেতানেত্রীদের ওপর হামলা করেছেন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক অনুসারীরা। হামলায় ঢাবির রোকেয়া হল শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি বিএম লিপি আক্তারসহ অন্তত ৭ জন আহত হয়েছেন। হামলায় অংশ নেয়া নেতাকর্মীদের মধ্যে ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীও রয়েছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। হামলাকারীদের বিচার দাবিতে শনিবার মধ্যরাতে রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান নেন হামলার শিকার ব্যক্তিরা। সোমবার ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানাতে গিয়ে মধুর ক্যান্টিনে হামলার শিকার হন পদবঞ্চিতরা। তখনও চার নেত্রীসহ ৮ জন আহত হন। ওই ঘটনার বিচার এবং বিতর্কিতদের কমিটি থেকে বাদ দিতে আন্দোলন চালিয়ে আসছিলেন পদবঞ্চিতরা। পরে তীব্র সমালোচনার মুখে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে ডেকে পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে থাকা বিতর্কিতদের বাদ দিতে বলেন। পরে বিতর্কিত হিসেবে ১৭ জন জনের নাম প্রকাশ করে ছাত্রলীগ। তাদের বিরুদ্ধে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তথ্য-প্রমাণ সাপেক্ষে ব্যবস্থা নিয়ে পদগুলো শূণ্য ঘোষণা করে বঞ্চিতদের পদায়নের ঘোষণাও দেয়া হয়। বৃহস্পতিবার রাতের মধ্যে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের কথা থাকলেও শনিবার সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি ছাত্রলীগ। এছাড়া তারা যে বিতর্কিত ৯৯ নেতার নাম প্রকাশ করেছে তাদের বিষয়েও কোনো তদন্ত কমিটি হয়নি।
 

রাজনীতি এর আরো খবর