রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পাশে ভারত নেই: মওদুদ আহমদ
খবরের অন্তরালে প্রতিবেদক :

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, ভারতের সাথে আজকে বর্তমান সরকারের একটি পরীক্ষা চলছে। আশা করেছিলাম ভারত রোহিঙ্গা ইস্যুতে কূটনৈতিক সহযোগিতা করবে। কিন্তু সেটা সম্ভব হলো না। এত বন্ধুত্ব এবং এত বিনিয়োগ, কিন্তু এ বিষয়ে বাংলাদেশের পাশে ভারত নেই। শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট আয়োজিত 'চলমান সঙ্কটের সমাধান কোন পথে' শীর্ষক এক গোলটেবিল আলোচনা সভায় তিনি এ বলেন। মওদুদ আহমদ বলেন, রোহিঙ্গারা স্থায়ী হলে আমাদের অর্থনীতির ওপর চাপ পড়বে, সামাজিকভাবে নানান নৈরাজ্য সৃষ্টি হবে এবং নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন আমাদের মনের মধ্যে রয়ে যাবে। এছাড়া উগ্রবাদীরা এই সুযোগ নিয়ে রোহিঙ্গাদের নিজেদের কাজে লাগানোর ষড়যন্ত্র করবে। আর এটা করা স্বাভাবিক এবং তারা করবেই। আর তখন এটার বহু ক্রিয়া ও প্রতিক্রিয়া বাংলাদেশে হবে। রোহিঙ্গা ইস্যু জাতীয় সঙ্কট মন্তব্য করে তিনি বলেন, এটা কোনো দলীয় সঙ্কট নয়। এটাকে সহজভাবে নেওয়াটা ঠিক হবে না। আজকে রোহিঙ্গাদের সংখ্যা ৫ লাখ ছাড়িয়ে গেছে, এই সংখ্যা আরো বাড়তে থাকবে। সুতরাং তাদের দেখাশোনা ও সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করতে হবে। এর সাথে সাথে তাদের আসা এবং অনুপ্রবেশ বন্ধ করতে হবে। মওদুদ আহমদ বলেন, যারা এসেছে, তাদের ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করতে হবে। রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে জয়েন্ট ওয়ার্কিং কমিটি করে কোনো লাভ হবে না। তিনি আরো বলেন, জাতিসংঘকে সরাসরি সম্পৃক্ত করে তাদের উদ্যোগে রোহিঙ্গাদের দেশে ফেরত পাঠাতে হবে। এ সময় প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার ছুটি প্রসঙ্গে মওদুদ আহমদ বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা একক নেতৃত্বে হয়নি। এই কথা বলাতেই প্রধান বিচারপতির ওপর এত ক্ষোভ সরকারের। ব্যারিস্টার মওদুদ আরো বলেন, ন্যায় বিচারের প্রতীক, বিচার বিভাগের স্বাধীনতার প্রতিনিধিত্বকারী বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতির ‘যে বেহাল অবস্থা বর্তমান সরকার করেছে’, তার ফলে সর্বোচ্চ আদালতের তথা বিচার বিভাগের সম্মান-মর্যাদা-ভাবমূর্তি নস্যাৎ হয়েছে। তিনি বলেন, “আজকে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে বর্তমান সরকারের নালিশের অন্যতম কারণ হচ্ছে, তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা একজনের জন্য হয় নাই, সকলের জন্য হয়েছে। এটা কী তিনি মিথ্যা কথা বলেছেন? এই কথাটা বলাতেই তাদের (সরকার) এতো বিদ্বেষ ও ক্ষোভ তার বিরুদ্ধে!” প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশের অযৌক্তিকতা তুলে ধরে মওদুদ আহমদ বলেন, গুটি কয়েক মানুষ ছাড়া বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য সবাই ত্যাগ স্বীকার করেছেন। সংগঠনের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সেলিমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ,খালেদা ইয়াসমিন,নিপুন রায় চৌধুরী প্রমুখ।  

সর্বশেষ সংবাদ

রাজনীতি এর আরো খবর