রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে ইউনূসের ৭ প্রস্তাব
খবরের অন্তরারে প্রতিবেদক :

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমার সরকারকে দ্রুতই পদক্ষেপ নিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন শান্তিতে নোবেলজয়ী বাংলাদেশি ড. মুহাম্মদ ইউনূস। এই সমস্যা সমাধানে মিয়ানমারের সাতটি পদক্ষেপ নেওয়া উচিত বলেও মনে করেন এই অর্থনীতিবিদ। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে চলমান রোহিঙ্গা নিধন সমস্যাকে ‘মানব দুর্যোগ’ হিসেবেই উল্লেখ করেন তিনি। সমস্যা সমাধানে তিনি বাস্তবায়ন কমিটি গঠনের কথাও বলেন। সংযুক্ত আরব আমিরাতের সংবাদমাধ্যম দি ন্যাশনালকে এসব কথা বলেন ইউনূস। প্রস্তুতিমূলক পদক্ষেপ হিসেবে ড. ইউনূস পরামর্শ দেন এর আগে জাতিসংঘের সেক্রেটারি জেনারেল কফি আনানের অ্যাডভাইজরি কমিশন থেকে কিছু সদস্য নিয়োগ দেওয়ার। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বাস্তবায়ন কমিটির ৭টি দায়িত্বের কথা বলেন ইউনূস। তার দেওয়া প্রস্তাবগুলো হলো: ১) আনান কমিশনের সুপারিশগুলো বাস্তবায়ন করা। ২) সহিংসতা বন্ধ করার জন্য এবং রোহিঙ্গাদের পালিয়ে যাওয়া রোধে দ্রুত কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা। ৩) দুর্গত এলাকায় নিয়মিত কোনো আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক আমন্ত্রণ জানানো। ৪) যেসব রোহিঙ্গা দেশ ছেড়ে চলে গেছে তাদের ফিরে আসার মতো পরিস্থিতি তৈরি করা। ৫) মিয়ানমারের ভেতরে ফিরে আসা রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের জন্য জাতিসংঘের অর্থায়নে ও রক্ষণাবেক্ষণে ক্যাম্প তৈরি করা। ৬) বাস্তবায়ন কমিটির বিশেষ কর্তৃপক্ষের অধীনে আনান কমিশনের সুপারিশমতো রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেওয়া। ৭) সব নাগরিকের রাজনৈতিক স্বাধীনতা নিশ্চিত ও রক্ষা করা এবং চলাচলের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা। আনান কমিশনের রিপোর্টের কথা বলতে গিয়ে তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, সেই রিপোর্টে দেওয়া সুপারিশগুলো দ্রুত এবং ঠিকঠাকমতো বাস্তবায়ন করলে এই সমস্যার একটি সহজ সমাধান আনা সম্ভব হবে।

সর্বশেষ সংবাদ

সংগঠন এর আরো খবর