অস্ত্রবাজরা সাবধান হয়ে যান: প্রধানমন্ত্রী

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের নেতাকর্মীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, যারা অস্ত্রবাজি করেন, ক্যাডার পোষেণ, তারা সাবধান হয়ে যান। এসব বন্ধ করেন। তা না হলে কঠোরভাবে এসব অস্ত্রবাজদের দমন করা হবে। গতকাল শনিবার গণভবনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি এই হুঁশিয়ারি দেন ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। দলের একাধিক নেতা বিষয়টি আরটিভি অনলাইনকে নিশ্চিত করেছেন। শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘আমাদের আরও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। সেই কথা মাথায় রেখেই সংগঠনকে তৃণমূল থেকে সুসংগঠিত করে তুলতে হবে। আওয়ামী লীগের সম্মেলনটা যাতে নিয়মিত হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। আমাদের যে উপকমিটিগুলো আছে তাদেরকেও দায়িত্ব নিতে হবে।’ জাতীয় সম্মেলনের দিনক্ষণ ঘোষণায় গণভবনে বৈঠক শেষে বের হওয়ার সময় নেতাদের মাঝেও উৎফুল্লতা ও খোশমেজাজ দেখা যায়। পাশাপাশি দলীয় পদ ও সরকারের দায়িত্বশীল পদে আসীন আছে তাদেরকে আত্ম অহমিকা ও ক্ষমতার জোরে অর্থ ও দুর্নীতির সাথে সম্পৃক্ত না হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। একইসঙ্গে আগামী ডিসেম্বরের ২০-২১ তারিখ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়। উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগের সর্বশেষ জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৬ সালের ২২ ও ২৩ অক্টোবর। ওই সম্মেলনে টানা অষ্টমবারের মতো সভাপতি নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা এবং সাধারণ সম্পাদক হন ওবায়দুল কাদের।

জাতীয় এর আরো খবর