চট্টগ্রামে ‌‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযান, ২ মরদেহ উদ্ধার

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ‘জঙ্গি আস্তানা’ ঘিরে চালানো র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) অভিযানে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। উপজেলার সোনাপাহাড় এলাকায় 'চৌধুরী ম্যানসন’ নামের ওই বাড়িতে অভিযানে নিহত এ দুইজন নব্য জেএমবির সক্রিয় সদস্য বলে র‌্যাব জানিয়েছে। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, দুইজনের মরদেহসহ ওই বাড়িটি থেকে কয়েকটি বোমা ও রাইফেল উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া বাড়িটির কেয়ারটেকারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, গোপন সংবাদে বাড়িটিতে জঙ্গিদের অবস্থানের তথ্য জানতে পেরে র‍্যাব অভিযান শুরু করে। এখানে অবস্থান করা জঙ্গিরা চট্টগ্রাম আদালতে হামলার পরিকল্পনা করেছিলেন। বাড়ির তত্ত্বাবধায়কের বরাত দিয়ে সাংবাদিকদের তিনি জানান, একজন পুরুষ ও একজন নারী গত ২৮ সেপ্টেম্বর এই বাড়িটি ভাড়া নিয়েছিলেন। পরে নারী চলে গেলে সেখানে চারজন পুরুষ বসবাস শুরু করেন। মুফতি মাহমুদ জানান, বাড়িটি থেকে একে ২২ বোরের একটি রাইফেল, তিনটি পিস্তল ও পাঁচটি গ্রেনেড পাওয়া গেছে। অস্ত্রগুলোর সঙ্গে ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলায় ব্যবহৃত অস্ত্রের সঙ্গে মিল রয়েছে। গোপন সংবাদে বৃহস্পতিবার রাত ৩টা থেকে ওই বাড়িটি ঘিরে রাখে র‌্যাব। বাড়িটিতে অবস্থানকারীদের প্রথমে আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়। কিন্তু তারা আত্মসমর্পণ না করে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে এবং বাড়ির ভেতরে বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা থেকে বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলের সদস্যরা গিয়ে বাড়িটির ভেতরে প্রবেশ করেন। এরপর র‌্যাবের অভিযান শুরু হয়। ‘চৌধুরী ম্যানশন’ নামের বাড়িটির চারদিকে র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যদের অবস্থানের সময় এর কাছাকাছি কাউকে যেতে দেওয়া হয়নি

খুন ও সন্ত্রাস এর আরো খবর