ত্বকের সমস্যার জাদুকরী সমাধান
খবরের অন্তরালে প্রতিবেদক :

ত্বকের সমস্যা আমাদের রোজকার। আর রোজকার এসব সমস্যা সমাধানে কাজে আসতে পারে ঘরে থাকা জিনিসপত্রই। মৌসুমটা যেহেতু ফলমূলেরই তাই ত্বকের সৌন্দর্য বাড়ানোর কাজে অনায়াসে ঝুঁকতে পারেন ফলের দিকে।

কোনো ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ভয় ছাড়াই ত্বক অনেকদিন ভালো থাকবে, সঙ্গে তেমনই ত্বকটা দেখাবে অনেক পরিচ্ছন্ন ও দাগহীন। জেনে নিন তেমনই কিছু টিপস।

ত্বকের যত্নে বেছে নিতে পারেন পাকা কলা। কলা স্ম্যাশ করে সরাসরি ত্বকে লাগান তাহলে ত্বকের কালো কালো ছোপ দূর হবে। চাইলে কলার মধ্যে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিতে পারেন তাহলে ত্বকের রঙ অনেকটাই হালকা হবে। পাকা কলা চুলের জন্যও খুব ভালো কাজ করে। চুলকে নরম, কোমল ও ঝলমলে করতে এর কোনো বিকল্প নেই।   

পেঁপেও ব্যবহার করতে পারের রূপচর্চার উপকরণ হিসেবে। সারারাত পাকা একটা পেঁপে ফ্রিজে রেখে দিন। পরের দিন সেটা ভালো করে ম্যাশ করেন্। এই পেস্টটি ত্বকে লাগান। ঘণ্টাখানেক রেখে হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন মুখ। ত্বকের কোমলতা যেমন বজায় থাকবে তেমনই যে কোনো ধরণের কালো দাগ থেকেও রক্ষা পাবে ত্বক।

লাল লাল স্ট্রবেরি যে কারোরই পছন্দের ফল। বিদেশি এই ফলটি খুব সম্প্র্রতি আমাদের দেশেও চাষাবাদ শুরু হয়েছে। ফলে পাওয়াও যাচ্ছে প্রচুর। ত্বকের যত্নে এই ফলটিও হতে পারে ভালো সমাধান। বলিরেখা, রিঙ্কেলস বা বয়সের ভার থেকে ত্বককে রক্ষা করতে বেছে নিতে পারেন স্ট্রবেরি। সপ্তাহে মাত্র দুই দিন করে ত্বকে লাগান। প্রথমে খানিকটা চুলকানি অনুভব হতে পারে। কিন্তু ত্বকের উপর বসে যাওয়ার পর যেমন ঠান্ডা অনুভব করবেন তেমনই মুখ ধোওয়ার পর মুখ খানিকটা উজ্জ্বলও দেখাবে।

কমলার রস যে মাত্র কয়েকটি মিনিটেই ত্বক উজ্জ্বল করে তোলে সেটা কি জানেন? যাদের ত্বকে ট্যান দেখা দিচ্ছে, ছোট ছোট ব্রণ দেখা যাচ্ছে, তারা ত্বকে নিয়মিত কমলার রস লাগাতে পারেন। কমলার রসটা আর একটু ঘন করতে তার সঙ্গে বেসন বা কলা মিশিয়ে নিতে পারেন। চাইলে খানিকটা গোলাপজলও ব্যবহার করতে পারেন। ফলাফল? আয়না-ই বলে দেবে।
খবরের অন্তরালে.কম/সো/২২ মার্চ ২০১৬