‘যুক্তরাষ্ট্রের লোকজন বাংলাদেশে এসেছেন ভ্যাকসিন নিতে’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের  লোকজন বাংলাদেশে এসেছে ভ্যাকসিন নিতে। অনেক উন্নত দেশ এখনো ভ্যাকসিন পায়নি। প্রতিটা লোককে আমরা ভ্যাকসিন দিতে চাই, কারণ প্রধানমন্ত্রী বিশ্বাস করেন, একটা লোকও যদি অসুস্থ থাকেন, তাহলে এই রোগ নির্মূল হবে না।
 
বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ১২টায় মহাখালীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে বিদেশি কূটনীতিকদের করোনার টিকা কার্যক্রমে তিনি এ কথা বলেন।
 
এর আগে তিনি নিজেও করোনার ভ্যাকসিন নেন।
 
পররাষ্ট্র মন্ত্রী আরও বলেন, আপনারা জেনে তাজ্জব হবেন, আমেরিকা থেকে কিছু মানুষ বাংলাদেশে করোনার ভ্যাকসিন নিতে আসছেন। আমি তাদেরকে জিজ্ঞেস করলাম আপনারা আমেরিকা থেকে দেশে আসছেন কেন ভ্যাকসিন নিতে। তখন তারা বলেছিলেন আমেরিকায় কতদিন পরে ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে? তাই এই সময় আমরা দেশেও আসলাম এবং ভ্যাকসিনও নিলাম। তারা প্রবাসী, এক মাসের জন্য ছুটি নিয়ে দেশে এসেছেন। আমরা খুব শিগগিরই বাংলাদেশ থেকে করোনাভাইরাস নির্মূল করবো। 
 
পররাষ্ট্র মন্ত্রী এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আল-জাজিরা এত মিথ্যা কথা বলে, তাদের মতো মিডিয়ার থাকা উচিত নয়। দুঃখের বিষয় যে, আল-জাজিরায় মত একটি বড় সংস্থা এত মিথ্যা কথা বলতে পারে। এত বানোয়াট গল্প বলতে পারে? তাদের লজ্জা হওয়া উচিত। তাদেরকে জনগণ গ্রহণ করেনি।এ ধরনের মিডিয়া থাকা উচিত নয়। তাদের আরও বেশি সচেতন হওয়া প্রয়োজন। এ ধরনের মিথ্যা বলা তাদের বন্ধ করা উচিত। অনেক দেশে আল-জাজিরা নিষিদ্ধ হয়েছে। 
 
তিনি আরো বলেন, আল-জাজিরার সঙ্গে আরেকটি সংস্থা হচ্ছে নেত্র, তারা বলেছিল বাংলাদেশে করোনায় ৫০ লাখ থেকে এক কোটি লোক মারা যাবে। এখন পর্যন্ত ৮ হাজারের কিছু বেশি লোক মারা গেছে। তারা ঘরে বসে বসে চিন্তা করে। দেশ সম্পর্কে তাদের কোনো জ্ঞান নেই। এসব কিছুর মূল কারণ হচ্ছে বাংলাদেশকে অসুবিধায় ফেলা। এরা ষড়যন্ত্র করে সরকারের বদনাম করে। এ সময় বাংলাদেশের অবস্থিত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা করোনার টিকা গ্রহণ করেন। 

সর্বশেষ সংবাদ

পররাষ্ট্র ও বাংলাদেশ এর আরো খবর