২০২৪ সালে ৩০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে: অর্থমন্ত্রী

আগামী ২০২৪ সালে বাংলাদেশ ৩০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘দেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। অবকাঠামো ও শিল্প কারখানার উন্নয়নে দেশের উৎপাদন আগের তুলনায় বেড়েছে। আর এ উৎপাদনকে এগিয়ে নিচ্ছে দেশের ক্রমবর্ধমান বিদ্যুৎ উৎপাদনের হার। আশা করছি বিদ্যুৎ উৎপাদনেের এ গতি অব্যাহত থাকলে ২০২৪ সালে দেশের বিদ্যুৎ উৎপাদন হার ৩০ হাজার মেগাওয়াটে পৌঁছাবে।’

জলবায়ুর পরিবর্তন সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্ব জলবায়ুর পরিবর্তনে বাংলাদেশ দায়ী নয়, তবু সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বাংলাদেশ। আমরা এ ক্ষতিপূরণ আদায়ে কাজ করছি।’

বাংলাদেশ ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফাইন্যান্স ফান্ড লিমিটেড (বিআইএফএফএল) ‘বিআইএফএফএল গ্রীণ অ্যান্ড পিপিপি কনভেনশন অ্যান্ড এক্সপো ২০১৮’- শীর্ষক এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে।

দেশে ভারসাম্যপূর্ণ অবকাঠামো নির্মানের লক্ষ্যে জ্বালানী দক্ষ ও জ্বালানী সাশ্রয়ী এবং পরিবেশবান্ধব শিল্প প্রযুক্তি সম্প্রসারণ এবং পিপিপি সম্প্রসারণ ও এ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

তিনদিন ব্যাপী এ মেলা চলবে আগামী ৬ অক্টোবর পর্যন্ত। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত সচিব এখলাচুর রহমান। এতে বিশ্বব্যাংক ও জাইকার প্রতিনিধি, বিআইএফএফএলের নির্বাহী পরিচালক এস এম ফরমানুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন।

বিআইএফএফএলের নির্বাহী পরিচালক এস এম ফরমানুল ইসলাম বিআইএফএলএল ২০১৭ সালের সমাপ্ত বছরের জন্য অর্থমন্ত্রীর কাছে ৬৪ কোটি টাকা লভ্যাংশ হস্তান্তর করেন।

অর্থ ও বাণিজ্য এর আরো খবর