রমজানে চাঁদাবাজি বন্ধ চান ব্যবসায়ীরা

পণ্য পরিবহনে পুলিশ ও স্থানীয় প্রভাবশালীদের চাঁদাবাজি হচ্ছে। ঈদ উপলক্ষে রমজান মাসে নানা আয়োজনকে কেন্দ্র করে চাঁদাবাজি বৃদ্ধি পায়। বিভিন্ন স্থানে নানা ধরনের অবৈধ রসিদ ধরিয়ে চাঁদাবাজি হচ্ছে। এসব চাঁদাবাজি বন্ধ চান ব্যবসায়ীরা।

তারা বলেন, চাঁদাবাজির কারণে পণ্যের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। এটি বন্ধ হলে এবং পণ্যের সরবরাহ ঠিক থাকলে রমজানে পণ্যের দাম স্বাভাবিক থাকবে।

রোববার ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন ব্যবসায়ীরা। আসন্ন রমজানে নিত্যপণ্যের মূল্য সহনীয় রাখার পাশাপাশি আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে এলাকাভিত্তিক ও বিশেষায়িত ব্যবসায়ী সমিতির নেতাদের সঙ্গে ঢাকা চেম্বারে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ঈদে যানজট ও নিরাপত্তার জন্য ব্যবস্থা নিচ্ছে সরকার। চাঁদাবাজির বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, গাড়িচালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স, রোড পারমিট ও ওভারলোড না করলে চাঁদাবাজি হবে না। কিন্তু সব জেনেও অতিরিক্ত পণ্য নিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। এ জন্য পুলিশ রাস্তায় গাড়ি থামায়।

অর্থ ও বাণিজ্য এর আরো খবর