কেটি পেরির পরিকল্পনা

মার্কিন পপ তারকা কেটি পেরি। নিজেকে নতুন ভাবে দেখার জন্য মেডিটেশন করলেন বলে জানান। এদিকে ‘ভোগ’ ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কেটি পেরি বললেন নতুন বছর নিয়ে তার পরিকল্পনার কথা। জানালেন, নানা স্বপ্ন দিয়ে ভর্তি তার ‘বাকেট লিস্ট’। মনোবিজ্ঞান আর দর্শন নিয়ে পড়তে চান। আর মানুষকে ভালো কিছু করতে অনুপ্রাণিত করতে চান। ৩৫ বছর বয়সী এই তারকা বলেন, ‘১২ বছরেরও বেশি সময় ধরে মানুষ আমাকে চোখে চোখে রেখেছে। এই এক যুগে আমি অনেক ভুল করেছি।
 
দিনশেষে আমিও একজন মানুষ। আর জীবনযুদ্ধে হেরে যেতে চাই না। জীবনের ইতিহাসে পড়ে যাওয়ায় গল্পগুলো থাকে না, থাকে উঠে দাঁড়ানোর গল্প।’ কেটি পেরি তার হতাশার সময়গুলোর কথা বলতে গিয়ে জানান, তখন তাকে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের শরণাপন্ন হতে হয়েছে। তখন সারা দিন ঘরের দরজা বন্ধ করে বিছানায় শুয়ে থাকতেন। বললেন, আমি থেরাপি নিয়েছি। লড়াই করেছি। কেটি জানিয়েছেন তার সর্বরোগের মহৌষধের নাম। বিষন্নতা থেকে মুক্তি পেতে অনেক ধরনের মেডিটেশন করেছেন। তার মতে, সেরা হলো ‘ট্রান্স সেন ডেন্টাল মেডিটেশন’। এটিই কেটিকে দিয়েছে নতুন জীবন। আরও জানালেন, বিশ্বের সবচেয়ে বড় মিথ্যা হলো দুঃখ ছাড়া ভালো শিল্প হয় না। শিল্পীদের তাই দুঃখ থাকতে হয়, বিষন্নতায় ভুগতে হয়। যখন তিনি ভয়াবহ মানসিক সংকটের ভেতর দিয়ে যাচ্ছিলেন, তখন তিনি শিল্পচর্চায় মনোযোগ দিতে পারেননি। এখন সুখে আছেন, মনের সুখে গান লিখছেন, গাইছেন।