অস্ট্রিয়ার সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রী
বিএনপির হামলার কথা বিদেশিদের জানাতে হবে
খবরের অন্তরালে প্রতিবেদক :

বিএনপির নেতিবাচক কার্যক্রম ও রাজনীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, বিএনপি কীভাবে বিভিন্ন সময়ে হামলা-নাশকতার মাধ্যমে মানুষ হত্যা করেছে, সে বিষয়টি বিদেশিদের কাছে প্রবাসী বাংলাদেশিদের তুলে ধরতে হবে। অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনার গ্র্যান্ড হোটেলে সর্বইউরোপ প্রবাসী বাঙালিদের আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় অংশ নিয়ে নিজের বক্তব্যে এ আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় বিএনপি-জামায়াত জোট ১৩৫ জন নিরীহ মানুষকে হত্যা করেছে। এরপর ২০১৫ সালে তিন মাসের অবরোধের সময়ে তারা সারা দেশের ২৩১ জন মানুষকে হত্যা করেছে। তিনি বলেন, ‘যারা অগ্নিসংযোগের মাধ্যমে মানুষ হত্যা করেছে, তাদের অবশ্যই বিচারের আওতায় আনা হবে। তারা পরিকল্পিতভাবে এই হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে। এদের অবশ্যই বিচার করা হবে।’ এ সময় সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও সফলতা নিজ নিজ অবস্থান থেকে বিদেশিদের কাছে তুলে ধরতে প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। এ ছাড়া জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ থেকে বাংলাদেশের মানুষকে রক্ষা করতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘ইসলামের নামে আত্মঘাতী হামলা চালানো এবং সাধারণ মানুষকে হত্যা করা এখনকার দিনে ফ্যাশনে পরিণত হয়েছে…এই খারাপ ও অসুস্থ প্রক্রিয়া থেকে বাংলাদেশের মানুষকে দূরে রাখতে আমি আপনাদের সব রকমের সহযোগিতা কামনা করছি।’ বার্তা সংস্থা ইউএনবির প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, সন্ত্রাসবাদ ও মাদকাসক্তিকে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে বড় সমস্যা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ এবং মাদকের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে এসবের বিরুদ্ধে সরকারের অভিযান অব্যাহত থাকবে।’ ইসলামকে শান্তির ধর্ম উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইসলাম কখনোই নিরপরাধ মানুষকে হত্যার কথা বলে না। শেখ হাসিনা বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ এখন শুধু নির্দিষ্ট কোনো দেশের সমস্যা নয়, এটি গোটা বিশ্বের জন্য সমস্যা। তিনি বলেন, এরই মধ্যে দেশে জঙ্গি ও সন্ত্রাসবিরোধী ব্যাপক প্রচারণা চালানো হয়েছে। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অভিভাবক, শিক্ষক, ইমাম এবং পেশাজীবীদের প্রতি সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সচেতন থাকতে অনুরোধ জানানোর কথাও বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে অস্ট্রিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, যুক্তরাজ্য, সুইডেন, নরওয়ে, ডেনমার্ক, সুইজারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস ও গ্রিস থেকে আসা আওয়ামী লীগের নেতারা অংশ নেন।

প্রবাস খবর এর আরো খবর