আজ শোকাবহ ১৫ আগস্ট, জাতীয় শোকদিবস

আজ শোকাবহ ১৫ আগস্ট, জাতীয় শোকদিবস। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাতবার্ষিকী।
১৯৭৫ সালের এই কালো দিনটিতে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পরিবার-পরিজনসহ নৃশংসভাবে শহীদ হন ! কিছু বিশ্বাসঘাতক রাজনীতিকের চক্রান্তকারীএবং একদল বিপথগামী সেনা সদস্যের নির্মম বুলেটের আঘাতে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবার ! প্রবাসে থাকায় সেদিন প্রাণে রক্ষা পান বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা।
সেদিন প্রাণ হারান কঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বেগম শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব,  ছেলে মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামাল, সেনা কর্মকর্তা শেখ জামাল ও ১০ বছরের শিশুপুত্র শেখ রাসেল এবং নবপরিণীতা দুই পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজী জামাল। সেই নির্মম হত্যাকাণ্ডে আরও প্রাণ হারান বঙ্গবন্ধুর ছোট ভাই  শেখ আবু নাসের, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, তার ছেলে আরিফ সেরনিয়াবাত, মেয়ে বেবী সেরনিয়াবাত, শিশুপৌত্র সুকান্ত বাবু, বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে শেখ ফজলুল হক মনি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি, নিকটাত্মীয় শহীদ সেরনিয়াবাত, আবদুল নঈম খান রিন্ট !
 বঙ্গবন্ধুর জীবন বাঁচাতে ছুটে আসা রাষ্ট্রপতির ব্যক্তিগত নিরাপত্তা কর্মকর্তা কর্নেল জামিল উদ্দিন আহমেদসহ কয়েকজন নিরাপত্তা কর্মকর্তা ও কর্মচারী।
জাতীয়ভাবে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পুরো জাতি আজ গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় স্মরণ করছে বাঙালির গর্ব, আবহমান বাংলা ও বাঙালির আরাধ্য পুরুষ শেখ মুজিবুর রহমানকে। একই সঙ্গে স্মরণ করছে ভয়াল সেই দিনে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে আরও যারা শহীদ হয়েছিলেন তাদেরও।একই সঙ্গে বিভিন্ন দেশে আওয়ামী লীগের শাখাও একইভাবে শ্রদ্ধাবনত চিত্তে স্মরণ করছে বাংলাদেশের জাতির পিতাকে।
বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা ! এ মহান নেতার চিন্তা-চেতনায় সব সময় কাজ করত বাংলা, বাঙালি ও বাংলাদেশ। তার অসামান্য অবদানের জন্য আজ এ দেশের মানুষের কাছে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ এক ও অভিন্ন সত্তায় পরিণত । যতদিন বাংলাদেশ ও বাঙালি থাকবে, ততদিন জাতির পিতার নাম এ দেশের লাখো-কোটি বাঙালির অন্তরে চির অমলিন, অয় হয়ে থাকবে।
আমরা তাঁর বিদেহী আত্মার প্রতি সর্বোচ্চ সম্মান ও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি !

সর্বশেষ সংবাদ