মানহানিকর বক্তব্য, সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে মামলা

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ডিএসসিসি’র বর্তমান মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসকে নিয়ে মানহানিকর বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে এই দুটি মামলা দায়ের করা হয়।
 
১১ জানুয়ারি, সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরীর আদালতে মামলা দুটি দায়ের করা হয়। এর মধ্যে কাজী আনিসুর রহমান একটি মামলার বাদী। আর অপর মামলাটির বাদী অ্যাডভোকেট মো. সারোয়ার আলম।
 
এর আগে সোমবার সকালে ডিএসসিসি মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস জানিয়েছিলেন সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করবেন। সোমবার কমলাপুর, টিটিপাড়া, সায়েদাবাদ গোপীবাগসহ বিভিন্ন এলাকার বক্স কালভার্টের ময়লা ও বর্জ্য অপসারণ কাজ পরিদর্শনে যান শেখ তাপস। এরপর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের এ কথা জানান তিনি।
 
দুর্নীতির বিরুদ্ধে সিটি করপোরেশনের চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান শেখ তাপস।
 
তিনি বলেন, ‘বিভিন্নভাবে যারা টাকা লেনদেন করেছেন তারাই দুর্নীতির অভিযোগ করছেন। সাবেক মেয়রের এমন বিষোদগার ব্যক্তিগত আক্রমণ বলে আমি মনে করি।’
 
মেয়র তাপস বলেন, ‘তিনি (সাঈদ খোকন) ব্যক্তিগত আক্রোশের বশবর্তী হয়ে অনেক কথা বলেছেন। এতে আমার মানহানি হয়েছে। আমি আইনি পদক্ষেপ (মামলা) নেব।’
 
তিনি আরো বলেন, ‘আমরা ১৭ মে দায়িত্বভার গ্রহণের পর থেকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান আরম্ভ করেছি। সেই অভিযান কার্যক্রম চলমান। আপনারা লক্ষ্য করেছেন সেখানে মার্কেট সংক্রান্ত কিছু তথ্য বেরিয়ে এসেছে। সেখানে বিভিন্নভাবে টাকা লেনদেন হয়েছে। যাদের সঙ্গে টাকা লেনদেন হয়েছে, যারা টাকা দিয়েছে তারাই অভিযোগ এনেছে। আমরা ঢাকা দক্ষিণ সিটির পক্ষ থেকে বা আমি ব্যক্তিগতভাবে কোনো সময় কোনো অভিযোগ আনিনি।’
 
তাপস বলেন, ‘সেখানে যারা লেনদেন করেছে, যারা ব্যবসায়ী, দোকানদার বা অবৈধভাবে সেই জায়গাগুলো দখলে ছিলো তারা অর্থ লেনদেন করেছে। এখন তিনি (সাঈদ খোকন) পুরো দোষ আমার ওপর চাপানোর চেষ্টা করছেন। সেটা আমি মনে করি খুবই অনভিপ্রেত এবং শুধুমাত্র আক্রোশের বশবর্তী হয়ে তিনি এই বিষয়গুলো তুলে ধরছেন।’

সর্বশেষ সংবাদ

আইন আদালত এর আরো খবর