ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক এমডিসহ ছয় কর্মকর্তাকে দুদকে

সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার (এসকে সিনহা) অ্যাকাউন্টে চার কোটি টাকা জমা দেওয়ার বিষয়ে তদন্ত করতে ফারমার্স ব্যাংকের ছয় কর্মকর্তাকে তলব করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক)। আজ বুধবার সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে তারা দুদক কার্যালয়ে হাজির হন। ফারমার্স ব্যাংকের কর্মকর্তারা হলেন- সাবেক এমডি শামীম, এক্সিকিউটিভ অফিসার উম্মে সালমা সুলতানা, অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট শফিউদ্দিন আসকারী আহমেদ, সাবেক অপারেশন ম্যানেজার ও ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুতফুল হক, সাবেক হেড অব বিজনেস ও সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট গাজী সালাউদ্দিন ও ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়। এ ব্যাপারে গতকাল সোমবার দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছিলেন, আমরা অনুসন্ধান করছি, এ বিষয়ে সরাসরি উত্তর দেওয়া সম্ভব নয়। দুদক দুজন ব্যক্তির বিরুদ্ধে ঋণ নিয়ে ওই টাকা অবৈধভাবে অন্যত্রে স্থানান্তরের বিষয়ে অনুসন্ধান করছে। অনুসন্ধান শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ বিষয়ে বক্তব্য দেওয়া যাবে না। দালিলিক প্রমাণ দিয়ে টাকা কোথায় ও কীভাবে গেল সে বিষয়টি খুঁজে বের করতে হবে। দালিলিক প্রমাণ ছাড়া দুদক কারও বিরুদ্ধে মামলা করবে না। দুদক সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালে ফারমার্স ব্যাংকের গুলশান শাখায় প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে দুই কোটি টাকা করে মোট চার কোটি টাকা মো. শাহজাহান ও নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা নামে দুই ব্যবসায়ী ঋণ নেন। এরপর একই বছরের ১৬ নভেম্বর সেই অর্থ পে-অর্ডারের মাধ্যমে সুরেন্দ্র কুমার সিনহার ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তর করেন। এ ঘটনায় গত ৬ মে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে ওই দুই ব্যবসায়ীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ অভিযোগটি অনুসন্ধান করছেন দুদকের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন ও সহকারী পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান।

আইন আদালত এর আরো খবর