খালাফ হত্যা মামলার আপিলের শুনানি ও রায় ১৭ অক্টোবর
খবরের অন্তরালে প্রতিবেদক :

সৌদি দূতাবাসের কর্মকর্তা খালাফ আল আলী হত্যা মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আপিলের রায় ঘোষণার জন্য আজ মঙ্গলবার দিন ধার্য ছিল। কিন্তু আদালত রায় ঘোষণা না করে নতুন দিন ধার্য করেছেন। আগামী ১৭ অক্টোবর শুনানি ও রায় ঘোষণা করা হবে। দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারকের আপিল বেঞ্চ নতুন করে শুনানি ও রায় ঘোষণার দিন ১৭ অক্টোবর ধার্য করে দিয়েছেন। রায় ঘোষণার জন্য মামলাটি আজকের দৈননন্দিন কার্যতালিকার এক নম্বর ক্রমিকে অন্তর্ভূক্ত ছিলো। গত ২০ আগস্ট আপিল বিভাগ শুনানি শেষে রায়ের জন্য এ দিন ধার্য করে দেন।
 
২০১৩ সালের ১৮ নভেম্বর হাইকোর্ট এক রায়ে খালাফ এস আল আলী হত্যা মামলায় সাইফুল ইসলামের মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখে। এছাড়া আসামি মো. আল আমীন, আকবর আলী লালু ও রফিকুল ইসলামকে মৃত্যুদণ্ডের পরিবর্তে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়। খালাস দেয়া হয় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি সেলিম চৌধুরীকে। হাইকোর্টের এই রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ। ২০১৪ সালের ২৩ জুলাই আপিল বিভাগ লিভ টু আপিল মঞ্জুর করে রাষ্ট্রপক্ষকে নিয়মিত আপিল দায়ের করতে বলে। পরে রাষ্ট্রপক্ষ হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে পৃথক তিনটি আপিল দায়ের করে। গত বছরের ৫ মার্চ মধ্যরাতের পর ঢাকার গুলশানের ১২০ নম্বর সড়কে নিজের বাসার অদূরে গুলিবিদ্ধ হন খালাফ আল আলী (৪৫)। পরদিন ভোরে হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। ২০১২ সালের ০৫ মার্চ রাত ১টার দিকে রাজধানীর গুলশান কূটনৈতিক এলাকার ১২০ নম্বর সড়কের ১৯/বি নম্বর বাসার সামনে গুলিবিদ্ধ হন খালাফ আল আলী (৪৫)। ৬ মার্চ ভোরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এর কিছুদিন পর ওই বছরের ৪ জুন দক্ষিণখান থানার গাওয়াইর এলাকা থেকে সাইফুল ইসলাম মামুন, আকবর আলী লালু ওরফে রনি ও আল আমিন নামে তিনজনকে গ্রেপ্তার করে ডিবি পুলিশের ডাকাতি, দস্যুতা ও ছিনতাই প্রতিরোধ টিম। এ সময় তাদের কাছ থেকে কালো রঙের একটি বিদেশি পয়েন্ট ২২ বোরের রিভলবার জব্দ করা হয়। অবৈধ অস্ত্র রাখার দায়ে ওইদিনই তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলা দায়ের করা হয়।

আইন আদালত এর আরো খবর