২৫ জেলায় শৈত্যপ্রবাহ শুরু

দেশের বেশ কিছু এলাকায় ফের শুরু হয়েছে শৈত্যপ্রবাহ। চলতি মাসের তৃতীয় এবং এ মৌসুমের ষষ্ঠ এই শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়েছে মঙ্গলবার। আট বিভাগের মধ্যে চট্টগ্রাম ও বরিশাল ছাড়া বাকি ছয়টিতেই বিস্তৃতি লাভ করেছে এটি। বিভাগগুলোর প্রায় ২৫টি জেলার মানুষ এই শৈত্যপ্রবাহের কবলে পড়েছে। এর আগে গত ডিসেম্বরের শেষে মৌসুমের তৃতীয় শৈত্যপ্রবাহও বিস্তৃতি লাভ করেছিল ছয়টি বিভাগের প্রায় ২৬ জেলায়। এদিকে রাজধানীতে গত দুদিন তাপমাত্রা কিছুটা কমলেও শীতের তীব্রতা তেমন বাড়েনি। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, থেকে শুরু হওয়া শৈত্যপ্রবাহ আরও ব্যাপকভাবে বিস্তৃত হওয়ার শঙ্কা না থাকলেও তিন চারদিন অব্যাহত থাকতে পারে। অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ গত রাতে দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘বেশ কিছু এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়েছে। বুধবার আরও কিছু এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে তবে ব্যাপকভাবে শুরু হওয়ার শঙ্কা নেই। তাপমাত্রাও বেশি কমার সম্ভাবনা নেই। এই শৈত্যপ্রবাহ তিন-চারদিন অব্যাহত থাকতে পারে। ’ অধিদপ্তরের মানচিত্র অনুযায়ী, পুরো রংপুর বিভাগের আট জেলা, ময়মনসিংহের সদর, জামালপুর ও শেরপুর; রাজশাহীর সদর, পাবনা, বগুড়া, নওগাঁ, জয়পুরহাট ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ; খুলনার কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা ও যশোর; সিলেটের মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ এবং ঢাকা বিভাগের টাঙ্গাইল ও মাদারীপুর জেলায় মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ চলছিল। দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া রংপুর বিভাগের সব জেলায় রাতের তাপমাত্রা ছিল ৯ ডিগ্রির নিচে। এদিন অধিকাংশ এলাকায় কমেছে দিনের তাপমাত্রা। দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে টেকনাফে ২৮ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সর্বশেষ সংবাদ

সারাদেশ এর আরো খবর