পাইলটের বুদ্ধিমত্তায় ৬৬ যাত্রীসহ ৭১ জন প্রাণে বেঁচে গেলেন
খবরের অন্তরালে প্রতিবেদক :

নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে আসা বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট পাইলটের দক্ষতা ও বুদ্ধিমত্তায় ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নিরাপদ অবতরণের ফলে ৬৬ যাত্রীসহ ৭১ জন প্রাণে বেঁচে গেলেন। বিমানটি উড্ডয়নের সঙ্গে সঙ্গে এর একটি চাকা খুলে পড়েছে। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় এ ঘটনা ঘটে। তবে বিমানটি ঢাকায় নিরাপদে জরুরী অবতরণ করেছে। বিমানের সব যাত্রী অক্ষত ও সুস্থ রয়েছে। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আজ দুপুরে বিমানবন্দরে বলাকা ভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিমানের (জনসংযোগ) কর্মকর্তা জিএম শাকিল মেরাজ সাংবাদিকদের জানান, বিজি-৪৯৪ ফ্লাইটে ৬৬ জন যাত্রী, ২ জন কেবিন ক্রু, ১ জন গ্রাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার এবং ২ জন পাইলট ছিলেন। নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে বিমানটি উড্ডয়নের পরপর এর পেছনের ৪ নম্বর চাকা খুলে যায়। তিনি জানান, সকাল ৯টা ৩৩ মিনিটে সৈয়দপুর থেকে ঢাকার উদ্দেশে ফ্লাইটটি ছাড়ার পর সেখানকার কন্ট্রোল টাওয়ার থেকে ক্যাপ্টেনকে জানানো হয় বিমানের একটি চাকা খুলে পড়ে গেছে। এ তথ্য পেয়ে ফ্লাইটের অপারেটিং ক্যাপ্টেন আতিক ও ফাস্ট অফিসার ইয়ামিন ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইমার্জেন্সি ল্যান্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন। তাদের দেয়া তথ্যানুযায়ী ঢাকায় যাবতীয় প্রস্ততি নেওয়া হয়। সকাল ১০টা ৩৮ মিনিটে ক্যাপ্টেন আতিক দক্ষতার সঙ্গে নিরাপদে বিমানটি অবতরণ করান। শাকিল মেরাজ জানান, এ ঘটনা তদন্তের জন্য বিমান কর্তৃপক্ষ ডেপুটি চিফ অব ফ্লাইট সেফটি ক্যাপ্টেন এনামকে প্রধান করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

দুর্ঘটনা এর আরো খবর