পদ্মার তাণ্ডবে এক ঘণ্টায় বিধ্বস্ত ১৪টি বাড়ি
খবরের অন্তরালে প্রতিবেদক :

পদ্মার তীব্র স্রোতে মাত্র এক ঘণ্টার মধ্যে বিধ্বস্ত হয়েছে ঢাকার দোহার উপজেলার নারিশা পশ্চিমচর এলাকার ১৪টি ঘরবাড়ি। এর মধ্যে নিমিষেই পানিতে তলিয়ে গেছে ৪টি ঘর। ভাঙন আতঙ্কে বাড়িঘর সরিয়ে নিতে ব্যস্ত এলাকার বাসিন্দরা। এলাকাজুড়ে চলছে সর্বহারা মানুষের আহাজারি।   এলাকাবাসীরা জানান, গত কয়েকদিন ধরে পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া নদীতে তীব্র স্রোত প্রবাহিত হচ্ছিল। আজ রবিবার রাতে আকস্মিকভাবে প্রচণ্ডবেগে স্রোতে সেখানে থাকা ৪টি ঘর মুহুর্তেই নদীতে তলিয়ে যায়। ভেঙে যায় আরও ১০টি ঘর। ভাঙনের ভয়াবহতা দেখে নদীপারের বাসিন্দারা আতিঙ্কত হয়ে ছুটোছুটি করতে থাকে।   এসময় অন্তত পাঁচজন আহত হয়। এদিকে ঘরে থাকা খাবারটুকুসহ সবকিছু হারিয়ে বাড়িঘরহারা মানুষগুলো যেন একেবারে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো। এ পরিস্থিতিতে দ্রুত সরকারি সাহায্য কামনা করেছেন তারা। নারিশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সালাহউদ্দিন দরানী বলেন, এটি একটি মর্মান্তিক ঘটনা। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর তালিকা করে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তিনি জানান, গত কয়েকদিন ধরে নারিশা পশ্চিমচর অংশ দিয়ে আগ্রাসী হয়ে উঠেছে পদ্মা। ভাঙনে আতঙ্কে মানুষ দিন-রাত কাটাচ্ছে। পানি একটু কমলে ভাঙন আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি।

সর্বশেষ সংবাদ

দুর্ঘটনা এর আরো খবর